দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ড এইচএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০২০ Dinajpur Board HSC Scholarship Result 2020

  

ঢাকা শিক্ষাবোর্ড এইচএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০২০ Dhaka Education Board HSC Scholarship Result 2020

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ড এইচএসসি বৃত্তির ফলাফল ২০২০ Dinajpur Board HSC Scholarship Result 2020

২০২০ সালের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে নিম্নবর্ণিত শর্তে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে তালিকাভূক্ত শিক্ষার্থীদের মেধাবৃত্তি” ও “সাধারণবৃত্তি প্রদান করা হলাে। সরকারি নিয়ম ও নীতিমালা অনুযায়ী এ বৃত্তি তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে।

এ বৃত্তি প্রদানের সময় নিম্নে বর্ণিত নিয়ম ও নীতিমালা অবশ্যই মেনে চলতে হবে-

১। (ক) বৃত্তির গেজেটে শিক্ষার্থী যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছে সেই প্রতিষ্ঠানের নাম থাকবে এবং প্রতিষ্ঠান প্রধানের সার্টিফিকেট প্রদান সাপেক্ষে ভর্তিকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে টাকা উত্তোলন করবে। বৃত্তির মেয়াদ ২০২০ সালের জুলাই মাস হতে কোর্সের মেয়াদকালীন সময় পর্যন্ত।

(খ) সংশ্লিষ্ট ছাত্র/ছাত্রীদের অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

(গ) সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের সদাচরণ, বিদ্যালয়ে নিয়মিত উপস্থিতি ও সন্তোষজনক পাঠোন্নতি সাপেক্ষে বৃত্তি প্রদান করা হবে।

(ঘ) এ বৃত্তিগুলাের সংখ্যা, হার ও মেয়াদ আপাত নির্ধারিত। প্রয়ােজনবােধে সরকার কোন কারণ না দেখিয়েই তা পরিবর্তন বা বাতিল করতে পারবে।

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে মঞ্জুরি (অনুমােদন) প্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে বৃত্তি কার্যকর হবে। মঞ্জুরি (অনুমােদন) প্রাপ্ত নয় এমন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ বৃত্তি কোন] মেই কার্যকর হবে না।

কারণ সরকারি আইন অনুযায়ী অননুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী বৃত্তি পাওয়ার যােগ্য নয় এবং অননুমােদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নকাল পাঠ বিরতি (ব্রেক অব স্টাডি) হিসেবে গণ্য হবে।

পিডিএফ ডাউনলোড করুন

৩। সকল বৃত্তিই কেবল নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেধানুসারে এবং নীতিমালার অন্যান্য শর্ত
মােতবেক প্রদান করা হবে। কোন ভাবেই অনিয়মিত শিক্ষার্থী বৃত্তি পাবে না।

৪। সকল বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযােগ লাভ করবে। সরকার অনুমােদিত কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে কোন মাসিক বেতন দাবী করতে পারবে না।

তাদের নিকট মাসিক বেতন দাবী করলে ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৫। কোন কারনে অর্থ বছরের নির্ধারিত সময় পার হয়ে গেলে মহাপরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এর অনুমােদন] মে
সর্বোচ্চ ০১ (এক) বছরের তামাদি (বকেয়া) বৃত্তি প্রদান করা যাবে।

৬। মেধাবৃত্তি ও সাধারণবৃত্তির মাসিক হার, এককালীন অনুদান এবং সময়সীমা নিম্নরূপ:

৭। বৃত্তির গেজেটে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বৃত্তির বরাদ্দকৃত অর্থ G2P পদ্ধতিতে EFT এর মাধ্যমে ব্যাংক হিসাবে প্রেরণের নিমিত্তে বাংলাদেশ তফসীলভুক্ত অনলাইন সুবিধাসম্পন্ন ব্যাংকে একাউন্ট খুলে হিসাব নম্বর ভর্তিকৃত প্রতিষ্ঠানে ৭ (সাত) দিনের মধ্যে আবশ্যিক ভাবে জমা প্রদানের জন্য শিক্ষার্থীদের নির্দেশ প্রদান করতে হবে।

৮। বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র/ছাত্রী ছাড়পত্র নিয়ে অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হলে তৎক্ষণাৎ প্রতিষ্ঠান দুটির প্রধানগণ বৃত্তি বদলির ব্যাপারে
নিম্নলিখিত তথ্যাদিসহ বাের্ডকে জানাবেন, অন্যথায় প্রয়ােজনীয় অনুমতির অভাবে সংশ্লিষ্ট বৃত্তির টাকা সময়মত উত্তোলন করা না গেলে সে জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধানগণই দায়ী থাকবেন।

বৃত্তি বদলীর বিষয়ে প্রেরিতব্য তথ্য:

ক) বৃত্তির টাকা উত্তোলন ও প্রদান সম্পর্কীয় পূর্ণ বিবরণ,

খ) যে বাের্ড হতে বৃত্তি দেয়া হয়েছে তার নাম, বৃত্তির প্রকার এবং যে বিজ্ঞপ্তি মারফৎ বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে তার নম্বর, তারিখ ও পৃষ্ঠা নম্বরসহ বৃত্তির [ক্রমিক নম্বর ও সংশ্লিষ্ট ছাত্র/ছাত্রীর রােল নম্বর।

গ) পূর্বতন প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত ছাড়পত্রের সত্যায়িত অনুলিপি।

৯। বিলম্বে ভর্তি, প্রতিষ্ঠান পরিবর্তন, বিষয় পরিবর্তন এবং অসুস্থতার কারেণে সর্বোচ্চ ০১ (এক) বছর পাঠ বিরতি গ্রহণযােগ্য।

তবে সে ক্ষেত্রে বৃত্তি নিয়মিতকরণ বাধ্যতামূলক। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর সকল বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজের বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিয়মিতকরণ করবে।

১০। বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র/ছাত্রীগণ কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা অনুরূপ কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রদত্ত অন্য কোন বৃত্তি গ্রহণ করলে বাের্ড
প্রদত্ত বৃত্তি বাতিল বলে গন্য হবে। সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী কোন ছাত্র/ছাত্রী একই সাথে একাধিক বৃত্তি ভােগ করতে পারবেনা।

১১। সরকারি আদেশ মােতাবেক বৃত্তি পাওয়ার যােগ্যতা সর্বনিম্ন জি পি এ ৩.০০। বৃত্তির তালিকা প্রস্তুতের ক্ষেত্রে নিম্ন লিখিত বিষয়গুলাে পর্যায়] মে অনুসরণ করা হয়েছে –

(ক) সংশ্লিষ্ট পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ -এর ভিত্তিতে (৪র্থ বিষয় ব্যতীত) বৃত্তি প্রদান করা হলাে।

(খ) একাধিক শিক্ষার্থী একই জিপিএ পেলে প্রথমে ৪র্থ বিষয় ব্যতীত প্রাপ্ত মােট নম্বরের ভিত্তিতে মেধা] ম প্রস্তুত করা হলাে।

(গ) ৪র্থ বিষয় ব্যতীত প্রাপ্ত মােট নম্বর একই হলে ৪র্থ বিষয়সহ প্রাপ্ত মােট নম্বরের ভিত্তিতে মেধা] ম প্রস্তুত করা হলাে।

(ঘ) ৪র্থ বিষয়সহ প্রাপ্ত মােট নম্বর একই হলে পর্যায়[ মে বাংলা ও ইংরেজিতে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধা] ম নির্ধারিত করা হলাে।

(ঙ) পর্যায়] মে বাংলা, ইংরেজি বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর একই হলে সংশ্লিষ্ট বিভাগে বাধ্যতামূলক ২টি বিষয়ে প্রাপ্ত সর্বমােট নম্বরের ভিত্তিতে মেধা] ম নির্ধারিত করা হলাে।

১২। এ বিজ্ঞপ্তিতে অনিচ্ছাকৃত কোন ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে তা সংশােধন, পরিবর্তন ও পরিবর্ধন করার ক্ষমতা বাের্ডসংরক্ষণ করে।

প্রয়ােজনবােধে কোন রকম কারণ না দেখিয়ে যে কোন বৃত্তি বাের্ড বাতিল করতে পারে।

সে কারণে বৃত্তির টাকা প্রদানের পূর্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ এই মর্মে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট হতে লিখিত প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করবেন যে, তারা বাের্ডের বৃত্তি সংন্ত নিয়ম কানুন মেনে চলতে এবং প্রয়ােজন হলে বৃত্তির সম্পূর্ণ অর্থ ফেরত দিতে বাধ্য থাকবে।

১৩। “মেধাবৃত্তি” ও “সাধারণ বৃত্তির ব্যয় বাজেটের “১২৫০২০১-১০৮৭৬২-৩৮২১১১৭” বৃত্তি/স্কলারশীপ খাত হতে নির্বাহ করা হবে।

মহাপরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর, ঢাকা এর স্মারক নং ৩৭.০২.০০০০.১১৭.৩১.০০১.২১-১০৮২ তারিখ১২/০৪/২০২১ইং এর পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট বৃত্তির টাকা ২০২০ সনের ১ জুলাই হতে কোর্সের মেয়াদকালীন পর্যন্ত বহাল থাকবে।

পিডিএফ ডাউনলোড করুন

Post a Comment

0 Comments