ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর অশ্লীল ছবিসহ ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করার অভিযোগে শিক্ষককে গ্রেপ্তার

ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর অশ্লীল ছবিসহ ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করার অভিযোগে শিক্ষককে গ্রেপ্তার

 ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর অশ্লীল ছবিসহ ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইল করার অভিযোগে আয়াতুল ইসলাম (৩৫) নামে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তিনি পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি থানার মুসলিম ব্লক এলাকার মো. ফয়জুল হকের পুত্র।


গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানাধীন কুয়াইশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করার বিষয়টি র‌্যাব -৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া)সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। 


আজ শুক্রবার রাত ১০টার দিকে সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) আনোয়ার হোসেন ভূঞা জানান, বিগত ২০১৮ সালে চট্টগ্রাম শহরের নিউরন ইংলিশ স্কুলের সাবেক এক শিক্ষক ১২ বছর বয়সী ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর কিছু অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে।


পরে ওই ছাত্রীর অশ্লীল ভিডিও তার বন্ধুদের পাঠিয়ে দেওয়া এবং ইন্টারনেটে ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে প্রায় তিন বছর ধরে তাকে ব্ল্যাকমেইল করে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছিল। একপর্যায়ে মেয়েটিকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ইমু, ম্যাসেঞ্জার এবং হোয়াটসআ্যাপে তার অশ্লীল ছবি ওই শিক্ষকের কাছে পাঠাতে বাধ্য করে।


তিনি আরও জানান, দীর্ঘ প্রায় ৩ বছর ধরে ওই শিক্ষকের এমন ব্ল্যাকমেইলের শিকার হয়ে মেয়েটি মানসিক বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। পরে উপায় না দেখে বিষয়টি তার পরিবারকে জানায়। পরিবারের সদস্যরা ঘটনাটি র‌্যাবকে অবহিত করে।


ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় গত বৃহস্পতিবার রাতে র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল গোপনে যৌন নীপিড়নে অভিযুক্ত ওই শিক্ষক আয়াতুল ইসলামকে হাটহাজারী থানার কুয়াইশ এলাকায় থেকে গ্রেপ্তার করে।


এদিকে, গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষক আয়াতুল ইসলাম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগের কথা স্বীকার করেছে।এ ছাড়া তার ব্যক্তিগত মুঠোফোন থেকে ওই শিক্ষার্থীর শতাধিক অশ্লীল ছবি উদ্ধার করা হয়েছে।


এদিকে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে হাটহাজারী মডেল থানায় পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব শর্মা। আগামীকাল শনিবার ওই শিক্ষককে আদালতে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Post a Comment

0 Comments